http://premkhanisee.blogspot.com/

ছোট মেয়েদের দিকে নজর দেয়া বাদ দিয়েছিঅনেকদিন ধরে। কিন্তু গতকাল সে পণ ভেঙে গেলো একটা অনুষ্ঠানে গিয়ে। সেখানে দুটি মেয়েআমাকে এত উত্তেজিত করেছে আমি প্রায় সারারাত সেই মেয়ে দুটিকে নিয়েই ছিলাম।একটা মেয়ে বয়স বড়জোর এগারো বারো হবে, হালকা পাতলা।আরেকটা বারো কি তেরো মোটা সোটা। হালকামেয়েটা কমলা গেন্জী পড়ে এদিক সেদিক ছোটাছুটি করছিল মনের সুখে। কারো চোখে পড়ার কথা না। কিন্তু বুকের দিকে তাকালে চমকে উঠবে। এটা কী। দুটো টেবিল টেনিস পাতলা কমলা টি-শার্ট ভেদ করে বের হয়ে ঈষৎ ঝুকে গেছে নীচের দিকে। এই বয়সে যেসব মেয়ের স্তন গজায় তাদের স্তন থাকে খাড়া, সোজা,চোখা। কিন্তু এটা অন্য রকম। যেন বড় মহিলার মোহনীয় দুধকে ছোট সাইজ করে এই মেয়ের বুকে ঝুলিয়ে দিয়েছে কেউ।সাধারনত ৩৬ সাইজের স্তনগুলো এইভাবে হেলে থাকে। কিন্তু এই মেয়ের ৩০ ও হয়নি। চিকন মেয়ে, কিন্তু দুটি রসগোল্লা বুকে নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে। নীচের দিকে নেমে গেছে। বাচ্চা মেয়ে প্রথমে এড়িয়ে গেছি। কিন্তু মেয়েটা বারবার এদিক সেদিক হাটছে দেখে চোখটা সরিয়ে রাখা কঠিন হয়ে দাড়ায়। এই তুলতুলে কচি স্তন দুটো হাতের মুঠোর ভেতর চাপতে কেমন লাগবে ভাবতে ভাবতে শক্ত হয়ে গেল নিন্মাঙ্গ। এই মেয়েকে পেলে একবার হাতে চেপে অনুভব করতাম তার কিশোরী স্তনের কোমলতা। মেয়েটার মা অসচেতন। নাহলে এই টি-শার্ট মেয়েকে পরাতো না।আধুনিকতার নামে মেয়েটাকে অনেক পুরুষের মনভোগের সঙ্গী করতো না। এই মেয়েকে আড়ালে পেলে যে কেউ চেখে দেখতেচাইবে। আমি সারারাত কল্পনায় চেখেছি ওকে। ওর দুধ নিয়ে খেলেছি। মুখের মধ্যে স্তনবোটা নিয়ে চুষেছি।